জাপানের অর্থ-বাণিজ্য-শিল্প মন্ত্রণালয়ের সরাসরি তত্ত্বাবধায়নে পরিচালিত
Copyright © 2012 Emergency Assistance Bangladesh. All Rights Reserved.

অভ্যর্থনা
পি ই টি সিটি
এম আর আই
বিশেষজ্ঞ পরামর্শ
প্যাথলজি, আল্ট্রাসাউন্ড, এক্স-রে, সিটি, পি ই টি সিটি, এম আর আই, ম্যামোগ্রাফিসহ অত্যাধুনিক সরঞ্জামে সজ্জিত নিঙ্গেন ডক সেন্টার
চিকিৎসার জন্য জাপান গমন সম্পর্কিত কিছু তথ্য

ভিসাঃ প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জাপান দূতাবাসে জমা দেয়ার অল্প কয়েক দিনের মধ্যে মেডিক্যাল ভিসা পাওয়া যায়। রোগীর এ্যাটেন্ড্যান্ট এর জন্যও ভিসা পাওয়া যায়। চিকিৎসার জন্য জাপানে একনাগাড়ে সর্বোচ্চ তিন মাস অবস্থান সম্ভব। প্রয়োজনে মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা দেওয়া হয়,যার সর্বোচ্চ মেয়াদ তিন বছর। বাংলাদেশ থেকে আবেদনের ক্ষেত্রে কোন ভিসা ফি লাগে না।
ঢাকা-টোকিও-ঢাকা ইকোনমি ক্লাস টিকেটের মূল্য-৮০ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজার ইয়েন ( সিজন অনুযায়ী)। চায়না এয়ার লাইন্স, ড্রাগন এয়ার (ক্যাথে প্যাসিফিক ), মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাই এয়ার লাইন্স সমূহের ফ্লাইট আছে ।
চিকিৎসা খরচ
নিঙ্গেন ডক এর ( হেলথ স্ক্রীনিং) প্রকৃত রেট ৩,৫০,০০০ ইয়েন। তবে বাংলাদেশের সম্মানিত ক্লায়েন্টদের জন্য আমাদের স্পেশাল ডিসকাউন্ট আছে।
আবাসন
অন্যান্য চিকিৎসার ক্ষেত্রে খরচের পরিমাণ, রোগের ধরণ, চিকিৎসার প্রকারভেদ (মেডিসিন / সার্জারি / অন্যান্য), হাসপাতালে অবস্থানের সময় ইত্যাদি বিষয়গুলির উপর নির্ভর করে। তুলনামূলক বিচারে, জাপানে চিকিৎসার খরচ সিঙ্গাপুর এর সাথে প্রতিযোগিতামূলক।
এয়ার টিকেট
হোটেল
 রেট (ইয়েন)
সাপ্তাহিক (উইকলি) হোটেল। এক রুমে দুইজন থাকা যাবে (ছোট কিচেন ও ফ্রিজ আছে)
 সাপ্তাহিক-৬০,০০০
 (দৈনিক নেই)
বিজিনেস হোটেল ( সিঙ্গেল রুম)
দৈনিক-৬,০০০
ফাই স্টার হোটেল
দৈনিক-২৫,০০০
 বা আরো বেশি
দ্রষ্টব্যঃ সিজন অনুযায়ী উপরোক্ত রেট পরিবর্তন হতে পারে।
হোটেল নিউ ওটানি
হোটেলের ভিতরে নিঙ্গেন ডক
এর জন্য বিখ্যাত তো-তো ক্লিনিক অবস্থিত।
হোটেল টোকিও ডোম
হোটেলের আশেপাশে রয়েছে চারটি
মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসপাতাল।